Saturday, April 25, 2015

ভূমিকম্পের সময়ে সতর্কতা - জেনে রাখুন, শেয়ার করুন এবং অন্যকে পরার সুযোগ করে দিন

ভূমিকম্প হলে সর্ব প্রথম যেটা করণীয় সেটা হল-মাথা ঠান্ডা রাখা/স্থির থাকা/উত্তেজিত না হওয়া। এটা জরুরী এই জন্য যে, উত্তেজিত হলে করণীয় বিষয় কী তা ঠিক করা কঠিন হবে। ভয় দ্রুত সংক্রামক বলে বিপদের মূহূর্তে একজনের সামান্য কথা/কাজ দ্রুত অন্যের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে প্যানিকের মত পরিস্থিতি সৃস্টি করতে পারে।
ভূমিকম্পের সময় আপনি যদি বাসা/অফিস অর্থাৎ দালান-কোঠার মধ্যে অবস্থান করেন, তবে নিচের বিষয়গুলো মানার চেস্টা করুন।
দ্রুত বাসা থেকে বের হওয়ার চেস্টা না করে বরং দ্রুত ডাইনিং/পড়ার টেবিল/খাটের নিচে আশ্রয় নিন। সেখানে হাটুকে কোলের কাছে এনে মাথা গোড়ালীর উপর রেখে হাত মাথার পিছনে রেখে অবস্থান করুন।অনেকটা নিচের ছবির মত।
যদি ডাইনিং/পড়ার টেবিল/খাট না থাকে তবে জানালা হতে দূরে ঘরের দেয়ালের কর্নারে বা এমন এক জায়গা যেখানে বুক শেলফ/ আসবাপত্র ইত্যাদি কাত হয়ে না পড়তে পারে, সেখানে অবস্থান করুন।
জানালার কাচঁ/ঘরের আয়না বা এই জাতীয় জিনিস থেকে দূরে থাকার চেস্টা করুন।
জানালার কাচঁ/ঘরের আয়না বা এই জাতীয় জিনিস বা হঠাৎ করে ছুটে আসা নানান বস্তু হতে আপনার মুখ/মাথাকে রক্ষা করার
জন্য পারলে বালিশ/কম্বল/পত্রিকা/ছোট বাক্স দিয়ে মুখমন্ডলকে আড়াল করুন।
কখনোই তাড়াহুড়ো করে বাসা হতে বের হতে যাবেন না। সিড়িঁ বিধস্ত হতে পারে।
বাসা হতে দ্রুত বের হওয়ার exit থাকলে সেটা ব্যবহার করুন। কখনোই লিফট ব্যবহার করবেন না কেননা বিদ্যুৎ বন্ধ হয়ে লিফট বন্ধ হয়ে আপনি সেখানে আটকা পড়তে পারেন।
সম্ভব হলে গ্যাসের চুলা নিভিয়ে দিন।
আপনি যদি বাইরে অবস্থান করেন, তবে দ্রুত ফাকাঁ স্থান দেখে সেখানে অবস্থান করুন যতক্ষন না কম্পন না থামে। চেস্টা করুন বিল্ডিং/ গাছপালা/ বিদ্যুৎ – এর খুটিঁ/লাইট পোস্ট হতে দূরে থাকতে। কম্পনের সময় এক জায়গাতে বসে হাটুকে কোলের কাছে এনে মাথা গোড়ালীর উপর রেখে হাত মাথার পিছনে রেখে অবস্থান করুন।
আপনি যদি গাড়ি চালানো অবস্থায় থাকেন, তবে সাবধানতার সাথে গাড়ি থামিয়ে দ্রুত ফাকাঁ স্থান দেখে গাড়িতেই অবস্থান করুন। চেস্টা করুন বিল্ডিং/ গাছপালা/ বিদ্যুৎ – এর খুটিঁ/লাইট পোস্ট হতে দূরে থাকতে।
* ভূমিকম্পের প্রথম ঝাঁকুনির সঙ্গে সঙ্গে খোলা জায়গায় আশ্রয় নিন।
* ঘরে হেলমেট থাকলে মাথায় পরে নিন, অন্যদেরও পরতে বলুন।
* ঘর থেকে বের হওয়ার সময় সম্ভব হলে আশপাশের সবাইকে বের হয়ে যেতে বলুন।
* দ্রুত বৈদ্যুতিক ও গ্যাসের সুইচ বন্ধ করে দিন।
* কোনো কিছু সঙ্গে নেওয়ার জন্য অযথা সময় নষ্ট করবেন না।
* যদি ঘর থেকে বের হওয়া না যায়, সে ক্ষেত্রে ইটের গাঁথুনি দেওয়া পাকা ঘর হলে ঘরের কোণে এবং কলাম ও বিমের তৈরি ভবন হলে কলামের গোড়ায় আশ্রয় নিন।
* আধাপাকা বা টিন দিয়ে তৈরি ঘর থেকে বের হতে না পারলে শক্ত খাট বা চৌকির নিচে আশ্রয় নিন।
* ভূমিকম্প রাতে হলে কিংবা দ্রুত বের হতে না পারলে সজাগ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আশ্রয় নিন ঘরের কোণে, কলামের গোড়ায় অথবা শক্ত খাট বা টেবিলের নিচে।
* গাড়িতে থাকলে যথাসম্ভব নিরাপদ স্থানে থাকুন। কখনো সেতুর ওপর গাড়ি থামাবেন না।
* এ সময় লিফট ব্যবহার করবেন না।
* যদি বহুতল বাড়ির ওপরের দিকে কোনো তলায় আটকা পড়েন, বেরিয়ে আসার কোনো পথই না থাকে, তবে সাহস হারাবেন না। ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করুন। ভেবে দেখুন, উদ্ধারকারী পর্যন্ত আপনার চিত্কার পৌঁছাবে কি না।
* বিম, দেয়াল, কংক্রিটের ছাদ ইত্যাদির মধ্যে আপনার শরীরের কোনো অংশ চাপা পড়লে, বের হওয়ার সুযোগ যদি না-ই থাকে, তবে বেশি নড়াচড়া করবেন না। এতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হতে পারে।
* ধ্বংসস্তূপে আটকে গেলে সাহস হারাবেন না। যেকোনো উত্তেজনা ও ভয় আপনার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।
ভূমিকম্প হওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যে করণীয়ঃ
১। বৈদ্যুতিক/ গ্যাস চালিত সব ধুরনের যন্ত্রপাতি ব্যবহারে বিরত থাকুন।
২। আহত লোকদের যতটুকু সম্ভব সাহায্য করুন। কেউ আটকা পড়লে চেস্টা করুন উদ্ধারের। না পারলে তাকে বা তাদেরকে পানি ও খাবার দিন এবং অভয় দিন।
৩। ভূমিকম্পের ফলে after shocks/effect যেমন সুনামি হতে পারে। সেজন্য প্রয়োজনীয় প্রস্ততি নিন।
৪। রেডিও থাকলে দূর্যোগ সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় তথ্য পাবার জন্য সেটি চালু রাখুন। টেলিফোন/মোবাইল চালু থাকলে প্রয়োজনীয় সাহায্য চাওয়ার জন্য এবং ক্ষয়ক্ষতি রিপোর্ট করার জন্য সেটি ব্যবহার করুন।
৫। একজায়গাতে/ রাস্তাতে জড়ো না হয়ে বরং সড়কপথকে ফাকাঁ রাখুন যাতে জরুরী সাহায্যের যানবাহন দ্রুত চলাচল করতে পারে।
সৃষ্টিকর্তা আমাদের প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে বাচার তৌফিক দান করুন smile emoticon
টিপস গুলো অবশ্যই শেয়ার করবেন। শুধু নিজে পড়লে হবে না অন্যকেঊ জানানোর চেস্টা করতে হবে ।
আর্টিকেল উৎস :www.ruplabonno.com